মেনু নির্বাচন করুন

মোকামিয়া মাজার

উপমহাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ আধ্যাত্নিক প্রান কেন্দ্র মোকমিয়া দরবার শরীফ এবং শ্রেষ্ঠ ইসলামী  শিক্ষার পাদপীঠ করুনা মোকামিয়া কামিল (এম এ)মাদ্রসা। এমন এক মহা পুরুষের সৃতি কিজরিত যিনি ছিলেন অলিকুল শিরোমনি, মোর্শেদে কামেল ও দক্ষিন বাংলার সকল স্তরের জনসসাধারনের নয়নমনি মোকামিয়া দরবার শরিফের মরহুম পীর সাহেব শাহ সূফী আলহাজ্ব হযরত মাওলানা হাছান উদ্দিন(রহঃ)। তিনি খানা এ ক্বাবার গিলাফ ধরে আল্লাহ তায়ালার প্রেমে কান্নার স্রোতধারায় গোটা আরব বাসীকে তাকলাগিয়ে পরিচিতি অর্জন করেছিলেন। বাংলার হাছান বলে। আরববাসী আজও যার পরিচয় খোজ করে। জম্ন থেকে মৃত্যু পর্যন্ত তার জীবন রাসুলেপাক (সঃ)এর পবিত্র আদর্শের অনুস্বারী কৈশরে ইয়াতিম হিসেবে দারিদ্রের যাতাকলে হয়ে নেক দুঃখ কষ্ট সহ্য করেছেন রাসুলেপাক (সঃ)এর আদর্শের অনুস্বরনে বাংলার এই নিবিড় বন জঙ্গলই ছিল তার কাছেরাসুলেপাকের হেরা সাদৃশ্যধ্যানাগার তারই এক কোনে তিনি আধ্যাত্নিকধ্যঅন সাগরের অতল তলে ডুবে থকতেন তখনকার ঔপনিবেশিক শাশনামলে মুসলিম সমাজ স্বকীয় বৈশিষ্ট ও শিক্ষা সংস্কৃতি হারিয়ে পৌছেছিল দুর্গতিরচরম সীমায় ছিলনা দ্বীনি শিক্ষার কোন কেন্দ্র। এমনি পরিস্থিতিতে ১৯৪২ ইং সনে মোকামিয়ার এই নদী নালা ও নীবিড় জঙ্গলের মাঝে এদেশের মানুষকে ইসলামের পরশ পাথরের স্পর্শে সতুন মানুষ রুপে গড়ে তোলার জন্য অনেক ত্যাগ তিতিক্ষা স্বীকার করে প্রকতষ্ঠা করেন মোকামিয়া দরবার শরীফ, জামে মসজিদ , মেহমানখানা,  


Share with :

Facebook Twitter